শ্রম দিবসে’র র‍্যালি ও অনুষ্ঠানাদি বাতিল করে শ্রমজীবী মানুষের মাঝে খাদ্য বিতরণ ও সার্ভিস

প্রিয় এপেক্সিয়ানবৃন্দ, আসসালামু আলাইকুম।

পবিত্র মাহে রমজানের রহমত, বরকতে আমরা সকলেই যেন সুস্থ ও নিরাপদে থাকতে পারি এই দোয়া সকলের জন্য । কোভিড-১৯ বা করোনা পরিস্থিতি ক্রমান্বয়ে জটিল হয়ে উঠছে।

এখন প্রচুর পরিমাণে করোনায় সতর্কীকরণ বা এওয়ার্নেস প্রোগ্রাম ও সেবা কার্যক্রম প্রয়োজন। অন্যদিকে করোনার এই পরিস্থিতি ও লকডাউনে সারাদেশ হতে বোর্ড সদস্য, ক্লাবসমূহের এপেক্সিয়ানরা অনুষ্ঠানে যোগ দিতে পারবেনা, ফলে ইয়ার প্ল্যান অনুযায়ী জাতীয় ইফতার আয়োজনের তাৎপর্য ও গুরুত্বের চেয়ে সেবাকার্যক্রম বেশি প্রয়োজনীয় ও গুরুত্বপূর্ণ।

এমতাবস্থায় জাতীয়বোর্ড সদস্যদের পরামর্শক্রমে এই বছরও এপেক্স বাংলাদেশের জাতীয় ইফতার অনুষ্ঠান সমীচীন ও যৌক্তিক হবেনা বিধায় ন্যাশনাল ইফতারের সম্ভাব্য সমূদয় বাজেট সেবা কার্যক্রমে ব্যয় করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এই ছাড়াও ১লা মে ‘আন্তর্জাতিক শ্রম দিবসে’র র‍্যালি ও অনুষ্ঠানাদি বাতিল করে শ্রমজীবী মানুষের মাঝে খাদ্য বিতরণ ও সার্ভিস করা হবে।

আসুন জাতীয় সভাপতির থিম ‘ লুকিং ফরোয়ার্ড ‘ বাস্তবায়নে এগিয়ে আসি এবং সকলে বেশি বেশি সেবাকার্যক্রমের উদ্যোগ গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করি।

অবহিতকরণে এপে. হাবীবুর রহমান চৌধুরী, ন্যাশনাল সেক্রেটারি এপেক্স বাংলাদেশ।